পুরো বিশ্বে এনজিও র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের ব্র্যাক প্রথম স্থানে

893

বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত এনজিও(নন গভারনমেন্ট অর্গানাইজেশন) ব্র্যাক ৫ম বারের মত এনজিও র‍্যাংকিং এ পুরো বিশ্বে প্রথম স্থান অর্জন করেছে।জেনেভা ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এনজিও এডভাইজর নামে একটি স্বাধীন মিডিয়া অর্গানাইজেশন পুরো বিশ্বের এনজিও গুলো সমন্বিত করে টপ ১০০ এনজিওর নাম প্রকাশ করেছে।যার মধ্যে বাংলাদেশের এনজিও ব্র্যাক টানা ৫ম বারের মত ১ম স্থান অর্জন করেছে।

১৯৭২ সালে স্যার ফজলে হাসান আবেদ ব্র্যাক প্রতিষ্ঠা করেন ।তিনি ব্র্যাক প্রতিষ্ঠা করে ইংল্যান্ড এর রানীর নিকট থেকে সন্মানিত পুরষ্কার নাইটহুড উপাধি লাভ করেন।ব্র্যাকের এই অবস্থানের পেছনে সবথেকে বেশি অবদান এই মানুষটিরই।ব্র্যাক এই অবস্থানে আসতে পেড়েছে তার অনন্য লিডারশীপ,অর্গানাইজেশন স্ট্রাকচার, সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে সিস্টেম্যাটিক পরিবর্তন ও দূরদর্শিতার কারণে।

ব্র্যাক বর্তমানে একটি আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা হিসেবে কাজ করছে।বর্তমান বিশ্বে ব্র্যাক অন্যতম বৃহত্তম উন্নয়নমূলক সংস্থা।বাংলাদেশে ৬৪টি জেলা সহ এশিয়া,আফ্রিকা,এবংআমেরিকার ১৩টি দেশে এর কার্যক্রম রয়েছে।ব্রাকের একটি তথ্য মতে বর্তমানে ব্র্যাক-এ ১ লক্ষের ও বেশি কর্মী কাজ করে।যার মধ্যে ৭০% ই নারী কর্মী।এবং ব্র্যাকের পরিসেবার আওতায় ১২৬মিলিয়ন মানুষ রয়েছে।

২০১৬ সালের একটি তথ্য মতে ব্র্যাকের আয় ছিল ৭২০ মিলিয়ন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৬ হাজার ৫৩ কোটি টাকা।ব্র্যাকের মাইক্রোক্রেডিট প্রকল্প প্রথম ৪০ বছরে ১.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিয়েছে।এর মধ্যে নারী ছিল ৯৫% এবং পরিশোধের হার ছিল ৯৮%।

১৯৯৮ সালে ব্র্যাক দুগ্ধ ও খাদ্য প্রকল্প শুরু করে।২০০১ সালে ব্র্যাক একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে যার নাম ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়।

এনজিও ও ক্ষুদ্র ঋণ এর প্রতিষ্ঠা করে অনেক আগেই বাংলাদেশ বিশ্বে তার অবস্থান জানান দিয়েছে।ক্ষুদ্র ঋণের প্রচলন করে বাংলাদেশের হয়ে অনেক আগেই গ্রামীণ ব্যাংক ও তার প্রতিষ্ঠাতা নোবেল প্রাইজ জয়ের গৌরব অর্জন করেছে।এনজিও খাতে বাংলাদেশের অবস্থান এখন সবার উপরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here