স্বেচ্ছায় লকডাউনে বাগাতিপাড়ার দুই গ্রাম

দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে কারোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। প্রাণ ঘাতি এই করোনা ভাইরাসের সংক্রামন রোধে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় স্বেচ্ছায় দেবনগর ও মাছিমপুর পুরো দুই গ্রামকে লকডাউন করেছেন ওই দুই গ্রামের মানুষ।

যদিও দেবনগর ও মাছিমপুর দুটি গ্রামের বাসিন্দাদের কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নেই, কোন জ্বর, সর্দিকাশি ও শ্বাসকষ্টের বিশেষ কোন রোগীও নেই। তবুও করোনা সতর্কতায় স্বেচ্ছায় পুরো গ্রামকে লকডাউন করেছেন গ্রামের মানুষ।

বুধবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে ওই দুই গ্রামের সচেতন যুবকরা গ্রামের প্রবেশপথে বাঁশের প্রতিবন্ধকতা দিয়ে সেখানে নোটিশ টানিয়ে দিয়েছেন। এছাড়া প্রবেশমুখে রাখা হয়েছে সাবান পানি। নিজেদের প্রয়োজনে কেউ বাইরে গেলেও ফেরার পথে ওই সাবান পানিতে হাত পা ধুয়ে গ্রামে প্রবেশ করা বাধ্যবাধকতাও করেছেন তারা।

তাদের দাবি, ‘সারাদেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার যখন বদ্ধপরিকর, নিজেদের গ্রামকে তা থেকে সুরক্ষিত রাখতে ও বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সেখানে বাহিরের কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না এবং গ্রামবাসীও জরুরী প্রয়োজন ছাড়া গ্রামের বাইরে বের হচ্ছেন না।
এ বিষয়ে দেবনগর গ্রামের বাসিন্দা শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, করোনা সতর্কতায় বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে গ্রামবাসী এই উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধি ছাড়া বহিরাগতদের গ্রামে প্রবেশ নিষেধ বলে তিনি জানান।

বাগাতিপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মতিন বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই। তবে করোনা ভাইরাস থেকে নিজেদের নিরাপত্তার জন্য হয়ত গ্রামে বহিরাগত কারো প্রবেশ ঠেকাতে বা সামাজিক নিরাপদ দুরত্ব বজায় রাখতে নিজেরা এমনটা করে থাকতে পারেন। বিষয়টি খোঁজ নিতে এলাকা পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান তিনি।’

//zohabd.com/আল-আফতাব খান সুইট, বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি,