বাজারে সেরা পাঁচটি ঘড়ি । best 5 watch

অ্যাপল ওয়াচ এসই (Apple Watch SE)

অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৬ এর পাশাপাশি পরিধানযোগ্য ফিটনেস ডিভাইস হিসেবে আরও একটি ডিভাইস উন্মুক্ত করেছে। ডিভাইসটির মডেল হলো- অ্যাপল ওয়াচ এসই। গতবছরের অ্যাপল ওয়াচ এস৫ এর বৈশিষ্ট্য যুক্ত তবে এটির স্ক্রিন সিরিজ ৬ এর মতো। তবে এ মডেলটিতে ২০১৮ সালে উন্মুক্ত করা সিরিজ ৪ এর কিছু ফিচার খুঁজে পাবেন না। এ ওয়াচটিও আপনার দেহের অক্সিজেন লেভেল পরিমাপে পারদর্শী। ডিভাইসটির মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ২৭৯ ডলার যা বাংলাদেশী মূল্য ২৩৯০০ টাকা।

অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৬ (Apple Watch 6)

নতুন পণ্য উন্মুক্ত করার অনুষ্ঠানটি অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৬ দিয়েই শুরু করা হয়েছিল। আশা করা যায়, অ্যাপলের এই ওয়াচটি স্বাস্থ্যসেবার ডিভাইস হিসেবে অ্যাপলের শক্তিকে আরও বৃদ্ধি করবে। এ বছর অ্যাপলের নতুন ওয়াচের বিশেষ চমক হলো- ব্যবহারকারীর দেহের রক্তে অক্সিজেনের লেভেল পর্যবেক্ষণ করবে। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৬ মাত্র ১৫ সেকেন্ডের মধ্যে আপনার দেহের অক্সিজেনের মাত্রা পরিমাপ করতে পারে। এ ডিভাইসটি আপনার ঘুমের লেভেলও পর্যবেক্ষণ করতে পারদর্শী। এ ওয়াচটি আগামিকাল (১৮) সেপ্টেম্বর থেকে বিক্রি শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। এটির মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ৩৯৯ ডলার যা বাংলাদেশী মূল্য ৩৪০০০ টাকা।

অ্যাপল ওয়ান (Apple One)

অ্যাল ওয়ান সম্পর্কে বলতে গেলে, অ্যাপল আপনাকে প্রতিমাসে অর্থ সাশ্রয়ের জন্য তাদের পরিসেবাগুলোর একটি বান্ডেল উন্মুক্ত করেছে। অ্যাপল আর্কাইভ, অ্যাপল মিউজিক, অ্যাপল টিভি প্লাস এবং ৫০০ জিবি আই ক্লাউড স্টোরেজ একসঙ্গে প্রতিমাসে মাত্র ১৪.৯৫ ডলারে গ্রাহকরদের উপহার দেবে অ্যাপল ওয়ান। প্রতিমাসে ২০০জিবি আই ক্লাউড ৬জন ব্যবহারকারী মাত্র ১৯.৯৫ ডলারের বিনিময়ে ব্যবহার করতে পারবে।
আইওএস ১৪ (IOS 14)

অ্যাপল আরও ঘোষণা দিয়েছে, তারা বাজারে আইওএস১৪ সংস্করণ উন্মুক্ত করবে। সফটওয়্যারটির নতুন সংযোজন হলো এর হোম স্ক্রিন ও অ্যাপ লাইব্রেরি। এ সংস্করণটি আইফোন ৬ থেকে এর পরবর্তী সব মডেলে সাপোর্ট করবে।

আইপ্যাড এয়ার (I Pad Air)

আইপ্যাড এয়ারের সঙ্গে আইপ্যাড প্রোয়ের ডিজাইনের বেশ মিল রয়েছে। সরু বেজেলের ডিভাইসটিতে আছে ১০.৯ ইঞ্চির লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ২৩৬০ বাই ১৬৪০ পিক্সেল। শুধু ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করা ৬৪ জিবি স্টোরেজ সংস্করণের দাম হবে ৫৯৯ ডলার। ওয়াইফাই ও সেলুলার নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সুবিধা চাইলে খরচ করতে হবে ৭২৯ ডলার। বিক্রি শুরু হবে অক্টোবর থেকে।
ফিটনেস প্লাস (Fitness Plus)

নতুন স্মার্টওয়াচ এবং ট্যাবলেটের সঙ্গে ব্যক্তিগত ফিটনেস সাবস্ক্রিপশন সেবা উন্মুক্ত করেছে অ্যাপল। ফিটনেস প্লাস নামের ওই প্লাটফর্মটি স্মার্টওয়াচ থেকে ডেটা সংগ্রহ করে এবং সেটি বড় ডিসপ্লেতে হিসাব অনুযায়ী ভিডিও হিসেবে প্রদর্শন করে। প্লাটফর্মটি আইওএস অ্যাপ স্টোরে বিদ্যমান জনপ্রিয় ফিটনেস অ্যাপ পেলোটন, লেস মিলস এবং ফিটের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করবে।
একই সঙ্গে এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় ফিটনেস প্লাটফর্ম ফিটবিটের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। ফিটনেস প্লাস সাবস্ক্রিপশনে ইয়োগা, ডান্সসহ আরও কিছু ওয়ার্কআউট শেখাবে অ্যাপল।
চলতি বছর শেষ হওয়ার আগে বিশ্বের মাত্র ছয়টি দেশে ফিটনেস প্লাস উন্মোচন করবে অ্যাপল।
ফিটনেস প্লাসের সেবা নিতে মাসিক ১০ পাউন্ড এবং বার্ষিক হিসেবে এর চার্জ করা হবে ৮০ পাউন্ড।