গুরুত্বপুর্ণ ৪০টি হাদিস

298

হাদীস শরীফে ৪০টি হাদীস সম্পর্কে অনেক ফজিলতের উল্লেখ আছে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরশাদ করিয়াছেন যে ব্যক্তি আমার উম্মতের জন্য ধর্ম বিষয়ক ৪০টি হাদীস সংরক্ষিত করিবে আল্লাহ তায়ালা তাহাকে কেয়ামতের দিন আলেম ও ফেকাহবিদগণের দলভুক্ত করিয়া উঠাইবেন এবং আমি ঐ দিন তাহার জন্য শাফায়াত করিব।

হে দয়ালু আল্লাহ। আপনি আমাদের সকলকে এই ৪০টি হাদীস মুখস্ত ও সেই মতে আমল করিবার তাওফীক দান করুন। আমিন।

১। নিশ্চয় সর্ব প্রকার কর্মের ফলাফল নিয়তের উপর নির্ভরশীল।
২। সুন্দর বাক্য হইল দান খয়রাত স্বরূপ- বোখারী।
৩। যাহারা আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করে তাহারা বেহেশতে প্রবেশ করিতে পারিবে না- বোখারী।
৪। সৎ পথে অবস্থান করিবে- মুসলিম শরীফ।
৫। ধর্ম খুবই সহজ- বোখারী।
৬। ছালাম প্রচার কর এবং শান্তির সহিত বেহেশতে প্রবেশ কর- তিরমিজি।
৭। দয়ালু আল্লাহর ইবাদত কর এবং গরীবকে আহার প্রদান কর- ইবনে মাজা।
৮। মৃত ব্যক্তিকে গালি দিন না- সহী আল জামী।
৯। তোমরা ঠিক সেইভাবে নামাজ পড় যেইভাবে আমাকে নামাজ পড়িতে দেখিয়াছ- মুসলিম।
১০। নামাজ হইল মুমিন বান্দাদের মিরাজ স্বরূপ-মিশকাত।

১১। এমনভাবে ইবাদত কর বা নামাজ পড় যেন ইহা আল্লাহ দেখিতেছেন-বোখারী ও মুসলিম।
১২। লোক প্রদর্শন সামান্য রিয়া ও শিরিক- বোখারী।
১৩। দোয়া ইবাদতের মগজ- মেশকাত।
১৪। মুমিনের ক্বলব আল্লাহর আরশ-মিশকাত।
১৫। মুমিন কাবা শরীফ হইতেও অধিকতর সন্মানী-ইবনে মাজা।
১৬। মানুষের কলব রাহমানের ঘর- মিশকাত।
১৭। যে পরের অমঙ্গল কামনা করে, সে আমার উম্মতের অন্তর্গত নহে-মুসলিম।
১৮। আলেমগণ হইল পয়গম্বরগণের উত্তরাধিকারী- তিরমিজি।
১৯। নামাজ দ্বীনের স্তম্ভ-মিশকাত।
২০। নামাজ বেহেশতের চাবি-মুসলিম।

২১। যে ব্যক্তি বলিবে “লাইলাহা ইল্লাল্লাহু” অর্থা’ আল্লাহ ব্যতিত কোন উপাস্য নাই সে অবশ্যই জান্নাতে প্রবেশ করিবে- মিশকাত।
২২। যে যাহাকে ভালবাসে আখেরাতে তাহার সঙ্গেই তাহার বাসস্থান হইবে-মুসলিম।
২৩। পাক পবিত্রতা ঈমানের অঙ্গ- মুসলিম।
২৪। শহরের মধ্যে আল্লাহর কাছে সবচেয়ে প্রিয় বা উত্তম স্থান হইল মসজিদসমূহ-মুসলিম।
২৫। পর নিন্দাকারী, পরের দোষ চর্চাকারী বেহেশতে প্রবেশ করিতে পারিবে না-বোখারী ও মুসলিম।
২৬। আল্লাহ তায়ালা তাহাদের উপর রহম করেন না যাহারা মানুষের উপর দয়া করে না- বোখারী ও মুসলিম।
২৭। প্রকৃত মুসলমান ঐ ব্যক্তি যাহার জিহ্বা ও হাত দ্বারা অন্য মুসলমান কষ্ট না পায়-বুখারী ও মুসলিম।
২৮। তোমাদের মধ্যে সেই ব্যক্তিই আমার কাছে সবচেয়ে প্রিয় যে অধিকতর চরিত্রবান- বোখারী ও মুসলিম।
২৯। আত্মার প্রাচুযই প্রকৃত প্রাচুয- বোখারী ও মুসলিম।
৩০। যে ব্যক্তি অন্য মুসলমানের দোষ গোপন রাখে, কিয়ামতের দিন আল্লাহ তায়ালা তাহার দোষ গোপন রাখিবেন- বোখারী ও মুসলিম।

৩১। মুসলমান একে অপরের সাথে সম্পর্কে ভাই ভাই- মুসলিম।
৩২। আমি নবীগণের (আঃ) শেষ নবী, আর আমার পরে কোন নবীর আবির্ভাব হইবে না- বোখারী ও মুসলিম।
৩৩। যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দরুদ শরীফ পাঠ করে আল্লাহ তায়ালা তাহার উপরে দশটি রহমত নাজিল করেন- বোখারী।
৩৪। দুনিয়া মুমিনদের জন্য কারাগারের মত আর কাফেরদের জন্য বেহশতের সমতুল্য- বোখারী ও মুসলিম।
৩৫। দান খয়রাত মালকে কমায় না- মুসলিম।
৩৬। হুজুরী ক্বলব ব্যতীত নামাজ হয় না- মুসলিম।
৩৭। তওবাকারী আল্লাহর বন্ধু- মুসলিম।
৩৮। যেখানেই থাক আল্লাহকে ভয় কর- তিরমিজি।
৩৯। লজ্জা খুবই উত্তম- মুসলিম।
৪০। মৃত্য ব্যতীত প্রত্যেক রোগের ঔষধ কালিজিরার মধ্যে নিহিত আছে- বোখারী ও মুসলিম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here